যে নারী দেশকে নিয়েছেন বিশ্বের সর্বচ্চো আসনে!
ভিজিট করতে ক্লিক করুন!
ভিজিট করতে ক্লিক করুন!


দীর্ঘদিন এই মহামানবীকে নিয়ে লিখবো লিখবো করে লেখা হয়ে উঠেনি . আজ কেনো যেনো মনে হলো খুব বেশি দেরি হয়ে যাচ্ছে হয়তো .

তাঁর জীবদ্দশায় হয়তো এক চিলতে ঋণও পরিশোধ করার মতো ক্ষমতা বা সৌভাগ্য আমাদের কারো নেই . প্রতিটি দিন অতিবাহিত হচ্ছে আর তিনি মহা থেকে মহান হচ্ছেন নিঃসন্দেহে .

জ্বী আমি কারাবাসি পৃথিবীর একমাত্র নারী সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার কথা বলছি .

তিনি একমাত্র সাবেক কোনো নারী প্রধানমন্ত্রী যিনি ৭০ উর্ধো বয়সে কোনো চাপ বা লোভের কাছে মাথা নত না করে এক অজানা পথ ধরে সামনে চলেছেন .

* তিনি জানতেন এখানে প্রতিটি মুহূর্ত মৃত্যুর পাশাপাশি চলতে হবে , তবুও তিনি পিঁছু হটেননি .

* তিনি জানতেন দেশে ফিরে এলে কারাবরণ করতে হবে , তবুও দেশে ছুঁটে এসেছেন .

* তিনি জানেন হয়তো জোর পূর্বক ফাঁসিও দিতে পারে, তবুও মাথা নত করেননি .

* তিনি জানেন একটু নত হলেই তাঁর মুক্তি সহজ , তবুও দয়া চাননি .

* তিনি তাঁর সন্তানকে হারিয়েছেন, তবুও দেশ ছেড়ে যাননি .

* তাঁর ২ সন্তানের ফুটফুটে কয়েকটি বাচ্চা রয়েছে , তাঁদের কাছেও চলে যাননি .

* তিনি জানেন আর কখনোই হয়তো প্রধানমন্ত্রী হবার সুযোগ পাবেন না , তবুও আপোষ করেননি .

* তিনি জানেন পেরোলে মুক্তি দিতে চাওয়া মানে তিনি একেবারেই মুক্ত হয়ে দেশ ছেড়ে চলে যেতে পারবে , তিনি দেশ ছাড়তে পারবেন না বলে পেরোলেও মুক্তি নেননি .

* একমাত্র নারী যিনি স্বামীর সহযোগিতা বিহীন একজন গৃহিনী থেকে ৩ বার প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন .

তিনি একমাত্র নারী হতে যাচ্ছেন যিনি , রাজনীতি গণতন্ত্র ও মানুষের জন্য নিজের সব সুখ ও পরিবারকে বিসর্জন দিয়েছেন .

আরো হাজারো উদাহরণে ভরপুর এই নারী রাজনীতিবিদ .

একবার ভেবে দেখুনতো এতটুকু সুযোগ আর অত্যাচার যদি আপনার নিজের জীবনে আসতো, কিভাবে মেলাতেন জীবনের অঙ্ক ??

একদিন জেল খাটার ভয়ে অনেকেই যেখানে রাজনৈতিক পরিচয়টি পর্যন্ত পরিবর্তন করে ফেলে . একদিন জেলে যাবার ভয়ে রাজনীতি ছেড়ে দেয়ার ভুরি ভুরি উদাহরণ আছে .

কিন্তু একজন নারী হয়েও কোনো সুযোগ বা লোভের কাছে মাথা নত করেননি তিনি .

এ যেনো এক ঐতিহাসিক বিখ্যাত কোনো আন্তর্জাতিক মানের রাজনীতিকের অনন্য দৃষ্টান্ত .

হাঁ এদেশের মানুষেরাও হয়তো কখনো গর্ব করে বলতে পারবে . গণতন্ত্রের জন্য জীবন বিসর্জন দেয়া খালেদা জিয়ার দেশের মানুষ আমরা .

নিশ্চয় বিশ্ব ইতিহাসে মানবিক অধ্যায়ের আরেকটি পাতা যোগ হবে তাঁর নামে .

তিনি হয়তো জানেননা, তিনি কতো বড়ো ইতিহাস তৈরী করতে যাচ্ছেন .

তিনি যদি জেলে মৃত্যু বরণ করেন তাহলে তিনি বিশ্ব বাসীর কাছে নতুন এক রাজনৈতিক উদাহরণ সৃষ্টি করবেন .

পৃথিবীর অন্য কোনো দেশে তাঁর জন্ম হলে হয়তো তাঁকে বিশ্ব নেত্রীর আসনেই বসানোর উদ্যোগ নিতো .

কিন্তু আমরা শুধু সবাই অপেক্ষায় আছি, কখন তিনি মৃত্যু বরণ করবেন .

আমি বিএনপির কোনো সমর্থক বা নূন্যতম সদস্য পদেও ছিলামনা কখনো . কিন্তু আজ আমার মনে হয়েছে তিনি আর শুধু বিএনপির নেত্রী নন . তিনি অচিরেই বিশ্বের ইতিহাসে অনন্য এক ঐতিহাসিক নজির স্থাপন করতে যাচ্ছেন .

এমন মানুষকে নিয়ে লেখার জন্য তার দলের সদস্য হবার প্রয়োজন নেই . তিনি এখন সবার গর্বের মানুষ হতে চলেছেন .

তাই আমার লেখাটি তাঁর প্রতি উৎসর্গ করলাম .

দীর্ঘজীবী হোন ” খালেদা জিয়া ” 
কৃতজ্ঞতা !!!

সাইফুর সাগর 
সাংবাদিক ও লেখক .

Please To Write An Article Sign-Up
error0
News Reporter

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *