চিত্কার করো মেয়ে যতদূর বলা যায়
ভিজিট করতে ক্লিক করুন!
ভিজিট করতে ক্লিক করুন!

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে স্বর্ণলতা নামে যাত্রীবাহী একটি বাসে এক নার্সকে গণধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার (৭ মে) স্থানীয়রা বিক্ষোভ শুরু করলে বাসটির চালক নূরুজ্জামান (৩৯) ও হেলপার লালন মিয়াকে (৩৩) আটক করে পুলিশ।

সংযমের মাসে কি একটি জাতি ধর্ষণের এই ভয়াবহতা থেকে মুক্তি পাবে? ধর্ম কি এই অধর্মের বর্বরতা থেকে মানুষকে মুক্তি দিতে পারবে? সংযমের মাসে ধর্ষণের মাত্রা বাড়বে নাকি কমবে ? খুব পরিষ্কার অর্থে বলতে গেলে বলতে হয় ধর্ষণের এই ভয়াবহতা সরকারের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে, সমাজের মাঝে নৈতিকতার আমূল পরিবর্তন আনতে না পারলে ধর্ষণের ভয়াবহতা থেকে মুক্তির পথ কোথায় ?


মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে রক্ষা করতে মানুষ তেলের ড্রাম নিয়ে রাজনীতিতে নেমে গেছে কিন্তু ধর্ষণের এই মহামারী থেকে জাতিকে রক্ষা করবে কে ? আমাদের সময় এসেছে ঠিক এই মুহূর্তে ধর্ষণের মহামারী থেকে জাতিকে উদ্ধার করতে আন্তর্জাতিক সাহায্য চাইবার, কারণ পরিস্থিতি সরকারের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে।


সমাজের চিত্রটা এতটাই ভয়াবহ যে ভাবতে গেলেই একজন সাধারণ মানুষ পাগল হয়ে যাবার উপক্রম।
বাসের ড্রাইভার আর কন্ডাক্টরগুলো ধরেই নিয়েছে বাসের যাত্রী মেয়ে মানুষগুলো যেন ধর্ষণের রসগোল্লা। 
সামাজিক মূল্যবোধের যে অবক্ষয় তা সামাল দিতে সরকারের পক্ষ থেকে বিবৃতি আর বাণী দেয়া ছাড়া পরিস্থিতিতে সামাল দেবার জন্যে কার্যকারী কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে বলে হচ্ছে না।


নার্সের বড় ভাই বাদল মিয়া অভিযোগ করেন যে গত সোমবার কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে স্বর্ণলতা যাত্রীবাহী বাসে একজন নার্সকে বাসের ড্রাইভার ও হেলপার ধর্ষণ করার পর তাকে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে হত্যা করে, নার্সের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ জেলা হাসপাতালের মর্গে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে, কিন্তু এভাবেই যদি ধর্ষিতাদের মরদেহ হাসপাতালগুলোতে পাঠাতে হয় তবে একদিন এই মরদেহগুলোর ভিড়ে সমাজের প্রতিটি পরিবারের একটি করে মরদেহ জমা হতে থাকলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।


–মাহবুব আরিফ কিন্তু।

Please To Write An Article Sign-Up
error0
News Reporter

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *