তিনি বিস্ময়কর নারী !!!

৫০ জন মানুষ খুনের বিষয়টি ইতিহাসের কলঙ্কজনক অধ্যায়ের অন্যতম একটি নিকৃষ্ট ঘটনা হিসেবে উল্ল্যেখ থাকবে , তাতে কোনো কোনো সন্দেহ নেই .

এমন অনাকাঙ্খিত ঘটনা পৃথিবীর সর্বোচ্চ শান্তির দেশ খ্যাত নিউজিল্যান্ডের মাটিতে সংঘটিত হবে তা আমাদের সবার ভাবনার অতীত .

এমন একটি ঘটনায় যখন সারা বিশ্ব হতবাক এবং প্রতিটি মুসলিম ধর্মকুলের মানুষের মনে দাও দাও করে আগুন জ্বলছে.

ঠিক এমন সময়ে সম্পূর্ণ আগুনকে মুহূর্তেই নিভিয়ে দিলেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ও মহিয়সী নারী ” জাসিন্দা আর্ডেন”

নির্মল ভালোবাসায় বুকে টেনে নিলেন মুসলিম ধর্মের সকল মানুষকে . পুরো ঘটনার দায়ভার নিজের উপরে নিয়ে সকল নিহতের পরিবারের সামনে দন্ডায়মান হয়ে মাথা ঝুঁকে দিলেন .

সারা বিশ্বকে অবাক করে দিয়ে সমস্ত আগুনকে স্নিগ্ধ একটি প্রশান্তির সাগরে রূপান্তর করে দিয়েছেন এই নারী .

বিগত অতীতে এমন ঘটনার পর আমরা শুধুই অস্ত্রের ঝনঝনানির শব্দ শুনেছি . সন্ত্রাসীদের নৃশংস প্রতিবাদী স্লোগান আর প্রতিঘাতের আক্রমণ দেখেছি .

এই প্রথম ” জাসিন্দা আর্ডেন ” সকল বিশ্ব নেতাদের দেখিয়ে দিলেন ভালোবাসা দিয়ে যুদ্ধ জয় করা সম্ভব .

একা একটি নারী সম্পূর্ণ ভিন্ন আঙ্গিকে জীবন বলিদানকারী পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন .

আমরা সবাই দেখেছি সবশেষে সমগ্র নিউজিল্যান্ডের নারীদের হিজাব পরিধান করতে . যা বিশ্বে মুসলিম বিদ্বেষীদের বিরুদ্ধে এক অনন্য অভূতপূর্ব প্রতিবাদ .

আমি মুগ্ধ, আমি অভিভূত এমন একজন নারীকে দেখে .

এর আগেও জাসিন্দা আর্ডেন সমগ্র বিশ্বে চমক দেখিয়েছিলেন . প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর তিনি পেটে বাচ্চা ধরণ করে নিজের সকল দায়িত্ব পালন করেছেন . এবং বাচ্চা ভুমিষ্ট হওয়ার পরেও শিশুকে নিয়ে সকল মিটিং সমাবেশ এবং সংসদ অধিবেশনে নিয়মিত অংশগ্রহণ করেছিলেন .

যা পৃথিবী ব্যাপী তাকে অনন্য নারীর আকাশ ছোঁয়া জনপ্রিয়তার শৃঙ্গে নিয়েছিল .

আজ আবারো প্রমান করলেন ” আর্ডেন “, একজন নারী অনেক কিছুই করতে পারে যা এতদিন পুরুষরা করতে পারেনি .

প্রয়োজন শুধু একটি সুন্দর মনের .

ব্যথিত মুসলিম শহীদদের আত্মার শান্তি কামনা করছি . তাঁদের পরিবারের সকলের প্রতি ধর্য্য শক্তি ধারণ করার প্রার্থনা করছি .

পৃথিবীতে প্রতিটি দেশে আর্ডেনের মতো নারী বয়ে আনুক এক সুন্দর শান্তি ও ভালোবাসার আগামী .

আর্ডেন হয়ে উঠুক নারী সমাজের উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত .

সাইফুর সাগর 
সাংবাদিক

Please To Write An Article Sign-Up
0

Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *